ঢাকা: বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) অনুমতি ছাড়া ব্লুটুথ প্রযুক্তি সম্বলিত কোনো মোটরসাইকেলের নিবন্ধন দেওয়া হবে না।

সম্প্রতি ব্লুটুথসহ বেতার তরঙ্গ সেবাযুক্ত মোটরসাইকেল বাজারজাতকরণে বিটিআরসি থেকে অনুমতি নিতে হবে বলে এক চিঠিতে জানিয়েছে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথোরিটি (বিআরটিএ)।

চিঠিতে বলা হয়, টেলিযোগাযোগ আইন-২০০১ অনুযায়ী বিটিআরসি কর্তৃক বরাদ্দ করা তরঙ্গ ছাড়া কোনো বেতার যন্ত্রপাতি স্থাপন, পরিচালনা বা ব্যবহার করা যাবে না। এ বিষয়ে দেশের সব মোটরসাইকেল উৎপাদন ও বিপণনকারী প্রতিষ্ঠানকে একটি চিঠি দিয়েছে বিআরটিএ।

বিআরটিএর প্রকৌশল পরিচালক শীতাংশু শেখর বিশ্বাসের সই করা ওই চিঠিতে বলা হয়, মোটরসাইকেলে ব্লুটুথ তরঙ্গ ভিত্তিক অ্যাপ ও ডিভাইস সংযোগের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট কোম্পানিকে বিটিআরসি থেকে অনুমতি নিতে হবে।

প্রতিষ্ঠানগুলো গ্রাহকের চাহিদার কথা চিন্তা করে নতুন নতুন সব ফিচার যুক্ত করছে তাদের মোটরসাইকেলে। যেমন- এবিএস, ফুয়েল ইনজেকশন এবং ব্লুটুথ ডিভাইস। এতে চালক অ্যাপের মাধ্যমে মোটরসাইকেলের মাইলেজ, রাইডিং হিস্ট্রি, গড় গতি, পাকিং হিস্ট্রি ইত্যাদি জানতে পারে। যদি আমদানিকারকরা বিটিআরসি থেকে ব্লুটুথ, ইন্টারনেট অব থিংকস, ভেহিকেল ট্র্যাকিং সিস্টেম অথবা অন্য কোনো ওয়্যারলেস ডিভাইস মোটরসাইকেলে সংযোজনের অনুমোদন না নেয়, তবে গ্রাহকরা বিআরটিএ থেকে মোটরসাইকেলের নিবন্ধন পাবেন না।

বিআরটিএ সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ইয়ামাহার অনুমোদিত পরিবেশক এসিআই মোটরস বিটিআরসি থেকে ব্লুটুথ এনাবেল্ড টেকনোলজি ব্যবহারের অনুমোদন পেয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির আসন্ন আর ওয়ান ফাইভ ভার্সন ৪.০, এফ জেড এক্স, এরক্স ১৫৫ মডেলের বাইকে এই আধুনিক প্রযুক্তি যুক্ত হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৫, ২০২১
এনএসআর



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews