কুমিল্লায় ব্যক্তিগত কার্যালয়ে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সৈয়দ মো: সোহেল ও তার সহযোগী হরিপদ দাসকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় মাসুম নামে আরো এক আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি নগরীর সংরাইশ এলাকার মঞ্জিল মিয়ার ছেলে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় কুমিল্লার চান্দিনা থেকে মাসুমকে গ্রেফতার করে জেলা পুলিশ।

মাসুমের গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সোহান সরকার।

তিনি আরো বলেন, ঘটনার পর মাসুম চান্দিনায় পালিয়ে যায়। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। তিনি কাউন্সিলর সোহেলসহ জোড়া খুন মামলায় এজাহারভুক্ত ৯ নম্বর আসামি। তাকে জেলার চান্দিনা উপজেলা থেকে গ্রেফতার করে কোতয়ালী থানায় আনা হয়েছে।

গতকাল বুধবার এ মামলায় কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এজাহারভূক্ত ৪ নম্বর আসামি সুমন নামে একজনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। সুমন শহরের সুজানগর পূর্ব পাড়া বৌবাজার এলাকার মৃত কানু মিয়ার ছেলে।

গত মঙ্গলবার দিবাগত গভীর রাতে নিহত কাউন্সিলর সোহেলের ছোট ভাই সৈয়দ মো: রুমন থানায় হত্যা মামলাটি করেন। মামলায় শহরের সুজানগর বৌবাজার এলাকার মৃত জানু মিয়ার ছেলে ‘মাদক ব্যবসায়ী’ শাহ আলমকে প্রধান আসামি করে ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

গত সোমবার বিকেলে নগরীর পাথুরিয়াপাড়ায় ১৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র সৈয়দ মো: সোহেলের কার্যালয়ে গুলি করে মুঁখোশধারী সন্ত্রাসীরা। এ সময় সন্ত্রাসীদের গুলিতে কাউন্সিলর সোহেল ও তার সহযোগী হরিপদ সাহা নিহত হন। এ সময় আহত হয় আরো অন্তত পাঁচজন। আহতরা বর্তমানে কুমিল্লা মেডক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews