মেলবোর্নের রড লেভার অ্যারেনায় মঙ্গলবার কোয়ার্টার-ফাইনালে প্রথম দুই সেটে সহজ জয়ের সম্ভাবনা জাগান নাদাল। তবে দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়ান শাপোভালোভ। শেষ সেটে আবারও স্বরূপে ফিরে কানাডার প্রতিপক্ষকে ৬-৩, ৬-৪, ৪-৬, ৩-৬, ৬-৩ গেমে হারিয়ে দেন ২০ বারের গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী।

বছরের প্রথম এই গ্র্যান্ড স্ল্যামে একবারই চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন নাদাল, ২০০৯ সালে। এখানে দ্বিতীয় শিরোপা এবং রেকর্ড গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের লক্ষ্যে এগিয়ে চলা স্প্যানিশ তারকাকে ম্যাচ চলাকালীন চিকিৎসা নিতে হয়। ধারণা করা হচ্ছে, পেটের সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি।

রজার ফেদেরার ও নোভাক জোকোভিচের সঙ্গে পুরুষ এককে সমান সর্বোচ্চ ২০টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতেছেন নাদাল। চোটের কারণে এবারের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে আগে থেকেই না খেলার সিদ্ধান্ত নেন সুইস তারকা। আর জোকোভিচ অংশ নিতে অস্ট্রেলিয়ায় পা দিলেও ভিসা জটিলতায় তার ফিরে যেতে হয়।

দীর্ঘ সময়ের দুই প্রতিপক্ষের অনুপস্থিতিতে রেকর্ডটা একার করে নেওয়ার জন্য আর মাত্র দুটি জয় চাই নাদালের। ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে মাত্তেও বেরেত্তিনি কিংবা গায়েল মঁফিসের মুখোমুখি হবেন ৩৫ বছর বয়সী তারকা।

মেলবোর্নের ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে কঠিন লড়াইয়ের পর নাদাল বলেন, তিনি ‘জানেন না’ কিভাবে শাপোভালোভের বিপক্ষে জিতলেন।

“আমার সব শক্তিই যেন শেষ হয়ে গেছে। খুব কঠিন একটি দিন কাটল, খুব গরম, আমি এর জন্য প্রস্তুতি নেইনি। ম্যাচের শুরুতে আমি দুর্দান্ত খেলছিলাম, আমি জানি, দেনিসের (শাপোভালোভ) মতো একজন খেলোয়াড়ের বিপক্ষে খেলা কতটা কঠিন।”

“তৃতীয়টির (সেটের) শুরুতে আমার সুযোগ ছিল, আমি তা কাজে লাগাতে পারিনি। এরপর একটু বেশি ক্লান্ত বোধ করতে শুরু করি এবং সে (শাপোভালোভ) আমাকে পেছনে ফেলে দেয়।”

দীর্ঘ চোটে পাঁচ মাস পর এই টুর্নামেন্ট দিয়েই গ্র্যান্ড স্ল্যামে ফেরেন নাদাল। চলতি মাসেই মেলবোর্ন সামার সেট জিতে প্রস্তুতিটাও বেশ ভালো হয় সাবেক এই নাম্বার ওয়ানের। পরের ম্যাচে জিতলে অস্ট্রেলিয়ার ওপেনে ষষ্ঠবারের মতো ফাইনালে উঠবেন ‘ক্লে কোর্টের রাজা’ খ্যাত নাদাল।



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews