ঢাকার ধামরাইয়ে বাউখন্ড গ্রামে এক স্কুলছাত্রীর বাল্যবিয়ে বন্ধ করল সহপঠীরা।





বুধবার দুপুরে স্কুল থেকে ডেকে এনে পরিবারের সদস্যরা দশম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক বিয়ের পিঁড়িতে বসালে সহপাঠীরা এসে বাল্যবিয়ে বন্ধ করে দেয়।

এসময় বিয়ের শেরোয়ানি, মাথার পাগড়ি এবং মকুট খুলে বিয়ের আসরে ফেলে পালিয়ে গেছেন বর ও বরযাত্রীরা। সহপাঠীদের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ের অভিশাপ থেকে পেল ওই স্কুলছাত্রী।

ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।বুধবার বেলা ৩টার দিকে উপজেলার আমতা ইউনিয়নের বাউখন্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পালিয়ে যাওয়া পাত্র বালিয়া ইউনিয়নের আদর্শ গ্রামের ইয়াছিন আলীর ছেলে পোশাক শ্রমিক মো. আলামিন হোসেন।

এনসব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান মো. আরিফ হোসেন বলেন, বাল্যবিয়ে সমাজের অভিশাপ।কোনভাবেই আমার ইউনিয়নে বাল্যবিয়ে হতে দেবনা।যে কোন ভাবেই হোক বাল্যবিয়ে বন্ধ করা হবে।



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews