চাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রেন দুর্ঘটনায় ৩ জন নিহতের ঘটনায় ৪ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। রেলের বিভাগীয় ব্যবস্থাপক (পাকশি) সাহেদুল ইসলাম, সহকারি পরিবহন কর্মকর্তা (পাকশি) সাজেদুল ইসলামকে প্রধান করে ৪ সদস্য বিশিষ্ট গঠিত কমিটিকে সাত কার্য দিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। 

চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেল স্টেশন মাস্টার বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। 

এদিকে ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত ৩ জনের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। পরিবারের উপর্জনশীল ব্যক্তি মারা যাওয়ায় তিন পরিবারই অন্ধকারের মধ্যে পড়েছে। কারণ ভটভটিচালক নাইমুল ইসলাম ও মাছ ব্যবসায়ী ফুলচান ও সেহের আলীর ওপরই নির্ভরশীল ছিল পরিবার। এদের মধ্যে ফুলচান চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের মসজিদপাড়া বৌ-বাজারে মাছ বিক্রি করতেন। আর সেহেরুল দিনে মাছ ও রাতে সিদ্ধ ডিম বিক্রি করে সংসার চালাতেন। সেহের আলী শহরের শহরের মহানন্দা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় সন্ধ্যায় ডিম বিক্রি করতেন। তার তিন সন্তান। এক মেয়ে ও দুই ছেলে। বড় মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে। বড় ছেলে মেহেদী হাসান এইচএসসি ২য় বর্ষের ছাত্র আর ছোট ছেলে জায়েদ হাসান এবার এসএসসি পাস করেছে। 

জাহেদ হাসান বলেন, তার পিতা বাসস্ট্যান্ডে ডিম বিক্রি করেই সংসার চালাতেন, মাঝে মধ্যে রাতে মাছ ধরতে যেতেন। গতকাল সোমবারও মাছ ধরতে গিয়েছিলেন এবং বাড়ি ফেরার পতে এই দুর্ঘটনার শিকার হয়ে তিনি মারা যান। 

প্রসঙ্গত, গতকাল সোমবার সকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রেনের ইঞ্জিনের সাথে একটি ভটভটি আটকে ৩ জন ঘটনাস্থলেই নিহত হন। নিহতরা হলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার ভুতপুকুর মহল্লার মৃত গরীবুল্লাহর ছেলে ফুলচান, আলীনগর মহল্লার রইস উদ্দিনের ছেলে সেহের আলী ও সদর উপজেলার ঝিলিম ইউনিয়নের আমনুরা কেন্দুল গ্রামের মানিক চাঁদের ছেলে ভটভটিচালক নাইমুল ইসলাম।



বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews