আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে ১৪-দলীয় জোটকে আস্থায় রাখতে চায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। এ জন্য দেড় বছরের বেশি সময় বাকি থাকতেই জোটের শরিকদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, আগামী নির্বাচনে জোটগতভাবে অংশ নেবে আওয়ামী লীগ। এর পেছনে দুটি কৌশল কাজ করেছে। প্রথমত, শরিকদের কেউ বিরোধী জোটে যাতে ভিড়ে না যায়, সেটা নিশ্চিত করতে চাইছে আওয়ামী লীগ। দ্বিতীয়ত, বিএনপিসহ বিরোধীরা নির্বাচন বর্জন করলে শরিকদের আলাদাভাবে ভোট করানোর কৌশল নেওয়া যাবে।

১৪-দলীয় জোটের প্রধান দল আওয়ামী লীগ এবং অন্য শরিক দলগুলোর নেতাদের সঙ্গে কথা বলে এসব বিষয় জানা গেছে।

গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রায় তিন বছর পর গত ১৫ মার্চ ১৪ দলের নেতাদের নিয়ে বৈঠক করেন জোটের প্রধান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি শরিকদের আশ্বাস দেন, আগামী নির্বাচনে জোটগতভাবেই অংশ নেবেন। এরপর ৭ মে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকেও জোটগতভাবে ভোটে অংশ নেওয়ার কথা জানান শেখ হাসিনা।

সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, ১৪ দলের বাইরে বাম ঘরানার অন্য দলগুলোকেও জোটে অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা আছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের।



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews