ইরানে ফের করোনা সংক্রমণ বাড়ায় মাস্ক রুল জারি

করোনার সংক্রমণ কমছে না ইরানে। গেলো ২৪ ঘণ্টায় সেখানে নতুন করে ৪ হাজার ১০৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। আর প্রাণ গেছে ২৪৩ জনের। গত বুধবারও ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ২৭৯ জন। এ অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে করোনা ঠেকাতে নাগরিকদের জন্য নতুন বিধি-নিষেধ আরোপ করেছে ইরান সরকার। প্রাদুর্ভাব কমাতে তেহরানজুড়ে মাস্ক রুল জারি করেছে দেশটির প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানী। কেউ মাস্ক ছাড়া রাস্তায় বের হলে তাকে ৫ লাখ ইরানী রিয়াল জরিমানার মুখোমুখি হতে হবে। আর করোনায় আক্রান্ত কোনো ব্যক্তি যদি কোয়ারেন্টিন পালন না করেন, তাকে দিতে হবে ২০ লাখ রিয়াল। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনুরোধে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ৫টি বড় শহরে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। খবর আল জাজিরার। তেহরান কর্তৃপক্ষ আগামী ২৩ অক্টোবর পর্যন্ত সেখানে আংশিক লকডাউন ঘোষণা করেছে। যার আওতায় সিনেমা হল, ক্যাফেটেরিয়া, বিশ্ববিদ্যালয় ও স্পোর্টস সেন্টার বন্ধ থাকবে। তবে ইরানের অর্থনীতি ভীষণ চাপের মুখে পড়ায় সেখানে পুরোপুরি লকডাউন কার্যকর করা যাচ্ছে না। এরই মধ্যে কাজ হারিয়ে চরম মানবেতর জীবন যাপন করছেন ইরানের হাজার হাজার নাগরিক।  এদিকে করোনা সংক্রমণ বাড়তে থাকায় সেখানকার হাসপাতালগুলোতেও চলছে অচল অবস্থা। বেশিরভাগ হাসপাতালে খালি নেই কোনো শয্যা। চিকিৎসা দিতে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন অনেক স্বাস্থ্যকর্মী। হাসপাতালগুলোয় বাড়ছে প্রয়োজনীয় ওষুধ ও জীবন রক্ষাকারী সরঞ্জামের সংকট।

এমএস/পি

করোনার সংক্রমণ কমছে না ইরানে। গেলো ২৪ ঘণ্টায় সেখানে নতুন করে ৪ হাজার ১০৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। আর প্রাণ গেছে ২৪৩ জনের। গত বুধবারও ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ২৭৯ জন।এ অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে করোনা ঠেকাতে নাগরিকদের জন্য নতুন বিধি-নিষেধ আরোপ করেছে ইরান সরকার। প্রাদুর্ভাব কমাতে তেহরানজুড়ে মাস্ক রুল জারি করেছে দেশটির প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানী। কেউ মাস্ক ছাড়া রাস্তায় বের হলে তাকে ৫ লাখ ইরানী রিয়াল জরিমানার মুখোমুখি হতে হবে। আর করোনায় আক্রান্ত কোনো ব্যক্তি যদি কোয়ারেন্টিন পালন না করেন, তাকে দিতে হবে ২০ লাখ রিয়াল। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনুরোধে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ৫টি বড় শহরে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। খবর আল জাজিরার। তেহরান কর্তৃপক্ষ আগামী ২৩ অক্টোবর পর্যন্ত সেখানে আংশিক লকডাউন ঘোষণা করেছে। যার আওতায় সিনেমা হল, ক্যাফেটেরিয়া, বিশ্ববিদ্যালয় ও স্পোর্টস সেন্টার বন্ধ থাকবে। তবে ইরানের অর্থনীতি ভীষণ চাপের মুখে পড়ায় সেখানে পুরোপুরি লকডাউন কার্যকর করা যাচ্ছে না। এরই মধ্যে কাজ হারিয়ে চরম মানবেতর জীবন যাপন করছেন ইরানের হাজার হাজার নাগরিক। এদিকে করোনা সংক্রমণ বাড়তে থাকায় সেখানকার হাসপাতালগুলোতেও চলছে অচল অবস্থা। বেশিরভাগ হাসপাতালে খালি নেই কোনো শয্যা। চিকিৎসা দিতে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন অনেক স্বাস্থ্যকর্মী। হাসপাতালগুলোয় বাড়ছে প্রয়োজনীয় ওষুধ ও জীবন রক্ষাকারী সরঞ্জামের সংকট।এমএস/পি



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews