ক্রীড়া প্রতিবেদক : দল ৩১ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর মুশফিকুর রহিম আর আফিফ হোসেনের ১৪৭ রানের পার্টনারশিপে নাজমুল হোসেন শান্ত একাদশ ঘুরেই দাঁড়ায় না শুধু, আসর সর্বোচ্চ সংগ্রহের পথও প্রশস্ত করে ফেলে। কিন্তু এই জুটির সমাপ্তি দুর্ভাগ্যজনকই। মুশফিকের সঙ্গে ভুল-বোঝাবুঝিতে রানআউট আফিফকে সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ২ রান দূরে থামতে হয়। ১২ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় ১০৮ বলে তাঁর ৯৮ রানের দারুণ ইনিংসের সঙ্গে যোগ হয় মুশফিকের (৫২) ধীরগতির ফিফটিও। শেষদিকে ইরফান শুক্কুরের (৩১ বলে ৪৮*) ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে মাহমুদ উল্লাহ একাদশের বিপক্ষে ৮ উইকেটে ২৬৪ রানের সংগ্রহ দাঁড় করায় নাজমুলের দল। ব্যাটিং ব্যর্থতায় যে সংগ্রহকে বিশাল বলেই মনে করিয়েছেন মাহমুদ উল্লাহরা, ৩২.১ ওভারে অলআউট ১৩৩ রানে। ১৩১ রানের জয়ে ফাইনালে ওঠার লড়াইয়েও কিছুটা এগিয়ে গেলেন নাজমুলরা। এই নিয়ে নাজমুলদের কাছে দ্বিতীয় ম্যাচেও হারলেন মাহমুদরা।



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews