সেন্ট জেমস পার্কে শনিবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচটি ৪-১ গোলে জিতেছে ইউনাইটেড। লুক শ’য়ের আত্মঘাতী গোলে পিছিয়ে পড়া দলকে সমতায় ফেরান হ্যারি ম্যাগুইয়ার। পরে একটি করে গোল করেন ব্রুনো ফের্নান্দেস, অ্যারন ওয়ান-বিসাকা ও মার্কাস র‌্যাশফোর্ড।

নিউক্যাসলের মাঠে ইউনাইটেডের সর্বশেষ লিগ ম্যাচের অভিজ্ঞতা সুখকর ছিল না। সেবার ১-০ গোলে হেরে ফিরেছিল দলটি।

আগের লিগ ম্যাচে টটেনহ্যাম হটস্পারের কাছে বড় ব্যবধানে হেরে আসা ইউনাইটেড প্রতিপক্ষের মাঠে পিছিয়ে পড়ে দ্বিতীয় মিনিটেই। জেফ হেনড্রিক ক্রস মতো বাড়িয়েছিলেন, কিন্তু বল শ’য়ের পায়ে লেগে জালে জড়ায়। গোলরক্ষক দাভিদ দে হেয়ার কিছুই করার ছিল না।

র‌্যাশফোর্ড, ফ্রেদ লক্ষ্যভেদে ব্যর্থ হওয়ার পর ১৯তম মিনিটে ডি-বক্সে নিজেদের মধ্যে বল দেওয়া নেওয়া করে ফের্নান্দেস দারুণ শটে জাল খুঁজে নেন। কিন্তু ভিএআরের পর্যবেক্ষণে হুয়ান মাতা অফসাইডে থাকায় গোল হয়নি।

নিউক্যাসলের রক্ষণে চাপ ধরে রেখে ইউনাইটেড সমতায় স্বস্তি ফেরায় চার মিনিট পরই। স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড মাতার কর্নার থেকে হেডে বল ঠিকানায় পৌঁছে দেন ইংলিশ ডিফেন্ডার ম্যাগুইয়ার।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে গোলরক্ষকের দৃঢ়তায় বেঁচে যায় দুই দলই। ৫২তম মিনিটে ক্যালাম উইলসনের  শট ঝাঁপিয়ে পড়ে ফেরান ইউনাইটেড গোলরক্ষক। এরপর ফের্নান্দেসের স্পট কিক ফিরিয়ে নিউক্যাসলের ত্রাতা গোলরক্ষক কার্ল ডারলো। ডি-বক্সে র‌্যাশফোর্ড ফাউলের শিকার হলে বেশ কিছুক্ষণ ধরে ভিএআর দেখে পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়েছিলেন রেফারি।

শ, র‌্যাশফোর্ডদের এলোমেলো প্রচেষ্টার পর ৮৬তম মিনিটে এগিয়ে যায় ইউনাইটেড। র‌্যাশফোর্ডের ছোট পাস ধরে ডান পায়ের দারুণ শটে দূরের পোস্ট দিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন ফের্নান্দেস।

চার মিনিট পর র‌্যাশফোর্ডের কাছ থেকে ফিরতি পাস পেয়ে নিখুঁত শটে জাল খুঁজে নেন অ্যারন ওয়ান-বিসাকা। আর দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময় ফের্নান্দেসের থ্রু বল ধরে বল জালে পাঠান র‌্যাশফোর্ড।

চার ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্দশ স্থানে আছে ইউনাইটেড। এক ম্যাচ বেশি খেলা নিউক্যাসল ৭ পয়েন্ট নিয়ে রয়েছে একাদশ স্থানে।



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews