ডিমের কুসুম থেকে তৈরি তেল

ডিমে যে অনেক উপকার এ কথা কমবেশি সবার জানা। তবে ডিমের কুসুম নিঃসৃত তেল বা এগ অয়েলের (Egg oil) কথা শুনেছেন? অনেকে হয়তো শোনেননি। গ্রিক পূরাণে এর উল্লেখ পাওয়া যায়। বর্তমানে উন্নত প্রযুক্তির মাধ্যমে ডিমের কুসুমের নির্যাস নিয়ে তা থেকে এই তেল তৈরি করা হয়। ৫ আউন্স অর্থাৎ প্রায় ১৫০ গ্রাম মতো তেল তৈরি করতে লাগে প্রায় ৫০টি ডিমের কুসুম। ডিমের মতোই এর নানাবিধ উপকারিতা। ডিমের কুসুম থেকে তৈরি তেলের উপকারিতা ডিমের কুসুম থেকে তৈরি হওয়ায় এই তেলে প্রচুর পরিমাণে স্বাস্থ্যকর ফ্যাট ও অ্যান্টি অক্সিডেন্টস থাকে। যা একাধিক চর্মরোগ সারাতে সাহায্য করে। রুক্ষতা দূর করে ত্বকে স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা ও মসৃণতা ফিরিয়ে আনে। যৌবন ধরে রাখতেও সাহায্য করে ডিমের কুসম থেকে তৈরি এই তেল। ডিমের নির্যাস থেকে তৈরি হওয়ায় এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ‘B3’, ‘A’ এবং ‘E’ রয়েছে। ফলে এর নিয়মিত মালিশ ত্বকে নতুন প্রাণের সঞ্চার ঘটায়। এই তেলের সবচেয়ে বড় গুণ হলো, মুরগীর ডিম খেলে যাদের অ্যালার্জি হয় অনায়াসে ব্যবহার করতে পারবেন। কারণ এতে আর অ্যালার্জির উপকরণ থাকে না। আরও পড়ুন...

শিশুকে বোতলে দুধ খাওয়ান? যে বিপদ হতে পারে


রাতে বালিশের নীচে রসুন রাখলে যে শক্তি বাড়ে



ডিমের কুসুমের তেল মালিশ করলে শরীরে রক্ত সঞ্চালন ভালো হয়। এতে ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরে। সূত্র- সংবাদ প্রতিদিন জিএ 

ডিমে যে অনেক উপকার এ কথা কমবেশি সবার জানা। তবে ডিমের কুসুম নিঃসৃত তেল বা এগ অয়েলের (Egg oil) কথা শুনেছেন? অনেকে হয়তো শোনেননি। গ্রিক পূরাণে এর উল্লেখ পাওয়া যায়। বর্তমানে উন্নত প্রযুক্তির মাধ্যমে ডিমের কুসুমের নির্যাস নিয়ে তা থেকে এই তেল তৈরি করা হয়। ৫ আউন্স অর্থাৎ প্রায় ১৫০ গ্রাম মতো তেল তৈরি করতে লাগে প্রায় ৫০টি ডিমের কুসুম। ডিমের মতোই এর নানাবিধ উপকারিতা।ডিমের কুসুম থেকে তৈরি হওয়ায় এই তেলে প্রচুর পরিমাণে স্বাস্থ্যকর ফ্যাট ও অ্যান্টি অক্সিডেন্টস থাকে। যা একাধিক চর্মরোগ সারাতে সাহায্য করে। রুক্ষতা দূর করে ত্বকে স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা ও মসৃণতা ফিরিয়ে আনে। যৌবন ধরে রাখতেও সাহায্য করে ডিমের কুসম থেকে তৈরি এই তেল। ডিমের নির্যাস থেকে তৈরি হওয়ায় এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ‘B3’, ‘A’ এবং ‘E’ রয়েছে। ফলে এর নিয়মিত মালিশ ত্বকে নতুন প্রাণের সঞ্চার ঘটায়। এই তেলের সবচেয়ে বড় গুণ হলো, মুরগীর ডিম খেলে যাদের অ্যালার্জি হয় অনায়াসে ব্যবহার করতে পারবেন। কারণ এতে আর অ্যালার্জির উপকরণ থাকে না। আরও পড়ুন...

প্রতিদিন যে কাজগুলো করলে আপনার সন্তান উৎপাদন ক্ষমতা কমবে

ডিমের কুসুমের তেলে থাকে অ্যান্টি-ব্যাক্টিরিয়াল ও অ্যান্টি-ফাঙ্গাল উপকরণ। এতে ত্বকের অযাচিত দাগ দূর হয়। ব্রণর সমস্যারও সমাধান করে এই তেল। চুলের ক্ষেত্রেও এই তেল খুব উপকারী। প্রথমে চুলের গোড়ায় এই তেল দিয়ে ভালো করে মালিশ করতে হবে। তারপর গরম জলে ভেজা তোয়ালে দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। এতে খুশকির সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে। পাশাপাশে চুল পড়াও বন্ধ হবে। নতুন চুল গজাতেও এই তেল সাহায্য করে।ডিমের কুসুমের তেল মালিশ করলে শরীরে রক্ত সঞ্চালন ভালো হয়। এতে ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরে। সূত্র- সংবাদ প্রতিদিন জিএ



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews